ফ্রিল্যান্সিং

ফ্রিলান্সিং : কিভাবে বিড করবেন?

আপনি যদি ফ্রিলান্সিং করতে চান, তাহলে বিড শব্দটির সাথে আপনাকে পরিচিত হতে হবে। বিড হচ্ছে বায়ারের দেয়া কোন প্রোপোজালের বিপরীতে কাজ করার জন্য নিজের আগ্রহ প্রকাশ করা। বিড সাবমিট করা ফ্রিলান্সারদের মধ্য থেকেই একজন ব্যক্তিকে বায়ার তার কাজের জন্য বেছে নেয়।

আজ আমরা শিখবো ফ্রিলান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে কিভাবে বিভিন্ন প্রজেক্টে বিড করতে হয়। পাশাপাশি বিড করার পরবর্তী কাজগুলো এবং প্রজেক্ট জমা দিয়ে পেমেন্ট নেয়ার সবকিছু বিস্তারিত জানবো।


►► আরো দেখুন : ডাউনলোড করুন সকল ফ্রিল্যান্সিং বাংলা পিডিএফ বই একসাথে
►► আরো দেখুন : ডাউনলোড করুন ওয়েব ডিজাইনের সকল বাংলা বই
►► আরো দেখুন : হাবলুদের জন্য প্রোগ্রামিং PDF Download
►► আরো দেখুন : গ্রাফিক্স ডিজাইন বই PDF Download 2021 Latest Version


I need a website

Hey! I need a website. The website will be an E-Commerce Website. If you want to know about the structure, demo or layout. It’s simple. It will be similar to Amazon.com or Daraz.com. | need this done within 14 days. Thanks

  • Budget: $1500
  • Duration: 2 Weeks

ঠিক এ ধরনের একটি করে প্রতিদিন লাখ লাখ টাইটেল এবং ডেনক্রিপশন ফ্রিল্যান্সিং মাকেটপ্লেসে স্ট্যাটাসের মতো পোস্ট হতেই থাকে। এবার এ ধরনের পোস্ট দেখে একজন ফ্রিল্যান্সার সেখানে আবেদন করার একটি অপশন পান এবং সেই অপশনে গিয়ে আবেদন লিখেন। আবেদনটির একটি নমুনা দেওয়া হলো।

যে আবেদনটি দেওয়া হয়েছে এটি পুরোপুরি কপি ব্যবহার করা যাবে না। কারণ ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্রেসে এক একটি আবেদনের জন্য এক-এক রকমভাবে লিখতে হবে । তবে এখানে আসলে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। আপনি কারো কাজ করে দিতে ইচ্ছুক এবং আপনার কী কী অভিজ্ঞতা আছে এসব সম্মানের সাথে লিখে আবেদন করলেই হবে । যেমন:

Dear Hiring Manager,
Thanks for posting the project. I have gone through your description and I believe that my skills are ideal for this project.

Over the last 8 years, I have been working as a Senior Web Developer and developed many E-Commerce websites.

| have the following skills: PHP, JAVASCRIPT, JQUERY, HTML5, CSS3, BOOTSTRAP, WORDPRESS THEME & PLUGIN DEVELOPMENT ETC.

On the other hand, I can speak in English fluently which will make our communication easy. Looking forward to hearing from you soon.

Sincerely
Your Name

মোটামুটি এভাবে গুছিয়ে সম্মানের সাথে লিখে বিভিন্ন দেশ থেকে বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সাররা সেই সার্কুলার বা প্রজেক্টে আবেদন, করেন। এই আবেদনকে বলা হয় “বিড” অর্থাৎ ফ্রিল্যান্সাররা সেই প্রজেক্টে বিড করেন।

এরপর যিনি প্রজেক্ট পোস্ট করেছেন তিনি যদি হন নিউইয়র্ক থেকে আর বাকি ফিল্যান্সাররা যদি হয় অন্যান্য দেশ থেকেন। তখন সময় না মিলার কারণে অনেকেই ঘুমিয়ে: থাকেন। তো যারা জেগে থাকেন তারা আবেদন করেন। বায়ারটি কিছুক্ষণ পরে বা কয়েক ঘণ্টা পরে বা একদিন পরে হলেও আবেদনগুলো চেক করেন। ঠিক আমরা যেভাবে ফেসবুকে নোটিফিকেশন চেক করি অনেকটা সেরকমই।

বায়ারটি চেক করার সময়ে যদি কারো আবেদন পড়ে ভালো লাগে, বিশ্বস্ত মনে হয়, তখন তাকে মেসেজ করেন। এক্ষেত্রে বায়ারের আগে কোন ফ্রিলান্সার তাকে মেসেজ করতে পারবে না। অপশনটি সেখানে থাকে না। নয় তো সবাই মেসেজ দিয়ে ইনবক্স ফুল করে ফেলবেন। তাই ওয়েবসাইট কর্তৃপক্ষ এই সুযোগ রাখেননি।

বায়ার ম্যাসেজ দেওয়ার পরে যদি দেখেন যে সেই ফ্রিল্যান্সার এখন অনলাইনে নেই তাহলে হয়তো তিনি উক্ত ফ্রিলান্সারের জন্য অপেক্ষা করবেন অথবা অন্য কোন ফ্রিলান্সারকে মেসেজ দিবেন, যিনি এই মুহুর্তে অনলাইনে রয়েছেন।

আর এ কারণেই বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সাররা একটু রাত বেশি জাগে প্রজেক্টের আশায়। এরপরে বায়ার ও ফ্রিল্যান্সার মিলে বিস্তারিত কথাবার্তা বলেন মেসেজে । সবকিছু ঠিক থাকলে বায়ার প্রজেক্টটি ফিল্যান্সারের কাছে হ্যান্ডওভার করে দেন সেই মােটপ্লেসের মাধ্যমে।

পাশাপাশি প্রজেক্টের টাকা জামানোত হিসেবে মার্কেটপ্লেসের কর্তৃপক্ষকে দিয়ে দেন। তবে প্রতারণার ভয় থাকে না এবং সেখানে বাকি ফ্রিল্যান্সারদের কাছে নোটিফিকেশন চলে যায় যে প্রজেক্টটি অন্য কোন ফ্রিলান্সারের কাছে হ্যান্ডওভার করা হয়েছে।

বায়ার যে সময় দেয় ফ্রিল্যান্সার চাইলে সেই সময়ের মধ্যেই কাজ শেষ করে ফেলতে পারে বা তার আরও সময় প্রয়োজন হলে চেয়ে নিতে পারে। কিন্তু বায়ারের খুব আর্জেন্ট হলে আর কিছু করার থাকে না; ফ্রিল্যান্সারকে সে কাজটি সম্পন্ন করতেই হবে, অন্যথায় প্রজেক্ট ক্যান্সেল হবে এবং মাকেটপ্লেস কর্তৃপক্ষ জামানোতের টাকা বায়ারকে ফেরত দিয়ে দেবেন

কাজ শেষ হওয়ার পরে ফ্রিলান্সারকে বায়ার সেই মার্কেটপ্লেসের মাধ্যমে ডলার দিয়ে দেন। মার্কেটপ্লেস থেকে সেই টাকা ট্রান্সফার করতে হলে ফ্রিলান্সারকে তার ব্যাংক একাউন্ট সাবমিট দিতে হয়। ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই সেই ডলার টাকায় কনভার্ট হয়ে ফ্রিলান্সারের দেয়া ব্যাংক একাউন্টে ডিপোজিট হয়ে যায়।


►► আরো দেখুন : ডাউনলোড করুন সকল ফ্রিল্যান্সিং বাংলা পিডিএফ বই একসাথে
►► আরো দেখুন : ডাউনলোড করুন ওয়েব ডিজাইনের সকল বাংলা বই
►► আরো দেখুন : হাবলুদের জন্য প্রোগ্রামিং PDF Download
►► আরো দেখুন : গ্রাফিক্স ডিজাইন বই PDF Download 2021 Latest Version


ওয়েব ডিজাইন, ডেভেলপমেন্ট এবং ফ্রিল্যান্সিং শিখতে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিন। আমরা আছি ইউটিউবেও। আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন এই লিংক থেকে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button