ব্র্যান্ড কথনব্লগ

বেক্সিমকো গ্রুপের ইতিহাস,যাত্রা ও বর্তমার অবস্থা

Table of Contents

বেক্সিমকো গ্রুপের ইতিহাস,যাত্রা ,বর্তমার অবস্থা

 

বেক্সিমকো গ্রুপের ইতিহাস,যাত্রা এবং প্রতিষ্ঠান সমূহ : 

বেক্সিমকো (Beximco), অনেক কারণেই বাংলাদেশের পরিচিত একটি নাম। করোনা মহামারীতে টীকা তৈরির প্রচেষ্টা সফল হওয়াতেও তাদের পরিচিতিটা আরো দ্বিগুণভাবে প্রতিফলিত হয়েছে । ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ এবং লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জে ও রয়েছে এই কোম্পানিটি। 

বাংলাদেশ থেকে Beximco প্রথম কোনো কোম্পানি হিসেবে London Stock exchange তে লিপিবদ্ধ হয়। যত বড় কোম্পানি বাংলাদেশে প্রতিষ্টিত হতে পেরেছে তার মধ্যে বেক্সিমকো একটি।

১৯৭০ সালের দিক বেক্সিমকো প্রতিষ্টা করেন এ. সোহেল এফ রহমান এবং সালমান এফ রহমান। তার ঠিক দুবছর পর, অর্থাৎ ১৯৭২ সালে Beximco Group of Company প্রতিষ্টিত হয়। শুরুর দিকে এই কোম্পানিটি শুধুমাত্র পাঠ ও পাটজাত দ্রব্য নিয়ে ব্যাবসায় করতো, এবং সে সময়ের প্রতিযোগিতা হীন এই মার্কেটে Beximco কোম্পানির রাজত্ব অনেকটা বেড়ে যায়।

Salman_F_Rahman beximco

বেক্সিমকোর ভাইস চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমান এবং তার ভাই, গ্রুপের চেয়ারম্যান সোহেল এফ রহমান। ছবি: বেক্সিমকো | সংগৃহীত – bdnews24.com

১৯৭০ সালের পরবর্তী সময়ে Beximco কোম্পানিটি টেক্সটাইল সেক্টর, ফার্মাসিউটিকেল, ক্যামিকেল ও ইনফরমেশন টেকনোলজিতে লিডারশিপ এরদিকে এগিয়ে যায় অনেকটা দ্রুততার সাথে। ২০০৫ সালে Beximco প্রথম কোনো বাংলাদেশি কোম্পানি হিসেবে লন্ডন স্টোক এক্সচেঞ্জে নিজেদের নাম তালিকাভুক্ত করে। বেক্সিমকো প্রথম কোনো বাংলাদেশি কোম্পানি যেটি দেশের বাহিরে Yellow Brand চালু করে পাকিস্তানে।

Yello Brand ২০০৪ সালের পর থেকে এখনও পর্যন্ত পাকিস্তানে ব্যাবসায় চালিয়ে যাচ্ছে। ২০০৯ সালে বেক্সিমকো বাংলাদেশে প্রথম কোনো কোম্পানি যারা Shinepukur Ceramics এর Showroom উদ্ভাবন করেন। বেক্সিমকো এবং তাদের অন্যান্য সব গ্রুপের আন্ডারে সকল গ্রুপ মিলে মোট ১০৩ টি দেশে তাদের ব্যাবসা বর্তমানে চালু রেখেছে।

বেক্সিমকো এই মুহূর্তে এশিয়ার অন্যতম বৃহত্তম টেক্সটাইল প্রোডাকশন কোম্পানি। এই কোম্পানিটির মালিকানায় রয়েছে Shinepukur Ceramics, দেশের বহুল প্রচলিত এই ব্র্যান্ডটির শতভাগ মালিকানায় রয়েছে বেক্সিমকো।

Beximco এর ব্যাবসা ব্যাংকিং খাতেও রয়েছে, এই কোম্পানিটি বহুল প্রচলিত IFIC Bank এর মালিক। সালমান এফ রহমান বর্তমানে ব্যাংক টির চেয়ারম্যান।

অন্যদিকে, Media Industry তেও রয়েছে বেক্সিমকোর বেশ দাপট। The independent Newspaper এর মালিকানায় রয়েছে Beximco পাশাপাশি INDEPENDENT  টেলিভিশন এর মালিকানায় ও রয়েছে কোম্পানিটি। আরও মালিকানায় রয়েছে অনলাইন নিউজপেপার bdnews24 ও Bangladesh Online LTD (BOL) এর ।

Beximco ব্যাবসা করে যাচ্ছে পাওয়ার ও এনার্জি নিয়ে। Beximco Power এর আওতায় রয়েছে বেক্সিমকো এলপিজি, যেটি আমাদের দেশে ভালোভাবেই প্রচলিত। Beximco Medicine Business বেশ পুরনো। Beximco Pharmaceutical বাংলাদেশে অত্যন্ত পরিচিত একটি নাম। এই Pharmaceutical এর বর্তমান CEO নাজমুল হাসান পাপন, যিনি বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট বোর্ডের ও প্রেসিডেন্ট। বাংলাদেশ থেকে Beximco একমাত্র কোম্পানি যারা প্রথম বারের মত আমেরিকা, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়ার পাশাপাশি সাউথ আমেরিকা ও আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে Pharmaceutical ওষুধ পণ্য রপ্তানি শুরু করেছে। এই কোম্পানিটির রয়েছে হোটেল ও রেস্টুরেন্ট এর বিজনেস, যার অন্যতম একটি হচ্ছে Westin Hotel, যেটি ঢাকায় রয়েছে।


Read More : ওয়ালটনের ইতিহাস , যাত্রা ও অবস্থা


গুলশান ২ তে অবস্থিত ঢাকার বিখ্যাত এই হোটেলের মালিক ও বেক্সিমকো। খেলাধূলার দিক থেকেও এই কোম্পানিটি কোনোভাবে পিছিয়ে নেই। শুরুর দিকে Shinepukur Cricket Club এর মালিকানায় রয়েছে Beximco, পরবর্তীতে BPL এর বিখ্যাত দল Dhaka Dynamites এর মালিকানায় ও রয়েছে Beximco । 

মাল্টি ন্যাশনাল কোম্পানি হিসেবে বেক্সিমকো

বাংলাদেশের মাল্টি ন্যাশনাল কোম্পানি হিসেবে বেক্সিমকো কাজ করে যাচ্ছে বিভিন্ন সেক্টরে, যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য রয়েছে Aviation, Banking, Ceramics, Construction, Electrical Power Generation, Fashion, Fisheries, Hotels, Information Technology, Direct to Home (DTH), Private satellite television channel, jute, media, petroleum products, pharmaceuticals, Real Estate, Textiles সহ আরো রয়েছে অনান্য অনেক।

Beximco এর রয়েছে টোটাল ২৬টি subsidiary কোম্পানি, যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য রয়েছে IFIC Bank, Beximco Pharma, Yello, Independent Television, bdnews24, Bangladesh Online LTD, BEXIMCO Petroleum Ltd, Dhaka Dynamites, Shinepukur Ceramics অন্যান্য আরো অনেক সহায়ক কোম্পানি।

এতটুকু ছিল বেক্সিমকো কোম্পানির কিছু সংক্ষিপ্ত ইতিহাস। এখন আমরা বেক্সিমকো কোম্পানির মালিক সালমান এফ রহমান সম্পর্কে জানবো।

সালমান এফ রহমান সম্পর্কে :

সালমান এফ রহমান, যিনি বাংলাদেশের একজন বিশিষ্ট বড় ব্যাবসায়ী এবং বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো গ্রুপের Owner বা মালিক। তার এই প্রতিষ্ঠানটি দেশের প্রায় সকল শিল্প খাতে বিনিয়োগ করেছে। যার মধ্যে বস্ত্র, সামুদ্রিক খাবার, আবাসন হোটেল নির্মাণ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, মিডিয়া, ওষুধ অন্যতম। এই দূরদর্শী ব্যাবসায়ী তার বিনিয়োগ মানসিকতা, অধ্যাবসায় ও বিচক্ষণতা দিয়ে শুধু বেক্সিমকো গ্রুপ কেই নয় বরং সামগ্রিক ভাবে বাংলাদেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের ব্যাবসায় খাতের সম্ভবনা যে সব ব্যাবসায়ী ৭০ দশকে উপলব্ধি করে পেরেছিল, তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন সালমান এফ রহমান।

 

ব্যাবসায়ের সাথে সাথে দেশের ভাবমূর্তি আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে তুলে ধরার গুরুত্বও তিনি উপলব্ধি করেছিলেন সে সময়ে।  ১৯৬৬ সালে সালমান এফ রহমান ও তার ভাই সোহেল এফ রহমান ব্যাবসায় নামেন। ১৯৭২ সালে তারা প্রতিষ্টা করে বাংলাদেশ এক্সপোর্ট এন্ড ইমপোর্ট কোম্পানি, যেটি পরবর্তীতে বেক্সিমকো গ্রুপ নামে প্রচলিত হয়। সে সময়ে গ্রুপটি ইউরোপে সামুদ্রিক খাবার এবং চূর্ণ হাড় রপ্তানি করতেন এবং সেই বৈদেশিক মুদ্রা দ্বারা ঔষুধ আমদানি করেন। ১৯৭৬ সালে তারা বেক্সিমকো ফার্মা প্রতিষ্টা করেন, যেটি বর্তমানে বাংলাদেশের ওষুধ খাতে সবচেয়ে নামকরা কোম্পানি হয়ে উঠেছে। 

 

১৯৮২ সালে দুই ভাই আরব বাংলাদেশ (AB Bank) প্রতিষ্টা করার জন্য দুবাই ভিত্তিক একটি গ্রুপের সাথে চুক্তি করে। তবে তারা ১৯৮৫ সালে ব্যাংকটির শেয়ার অন্য অংশীদারদের কাছে বিক্রি করে দেন এবং IFIC ব্যাংক এর ৩০ শতাংশ শেয়ার কিনে নেন। ২০১০ সালে সালমান এফ রহমান ব্যাংকটির চেয়ারম্যান হন। বর্তমানে তিনি IFIC ব্যাংক এবং আবহনি লিমিটেড এর চেয়ারম্যান রয়েছেন। একইসাথে তিনি ইংরেজি অনলাইন ভিত্তিক নিউজপেপার The independentইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের মালিক। ২০১৬ সালের নভেম্বরে সালমান এফ রহমান ক্ষমতাশীল আওয়ামীলীগ সভাপতি মাননীয় শেখ হাসিনার বেসরকারি উন্নয়ন খাতের উপদেষ্টা হিসেবে পুণ্য নিয়োগ প্রাপ্ত হন।


Read More : ওয়ালটনের ইতিহাস , যাত্রা ও অবস্থা


আওয়ামীলিগ বেসরকারি খাতের উন্নয়নে সালমান এফ রহমান এর প্রজ্ঞা এবং মেধা কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন, অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছিলেন কারণ সালমান এফ রহমান একজন সুপরিচিত প্রভাবশালী ব্যাবসায়ী যিনি বেক্সিমকো গ্রুপকে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় কর্পোরেট কোম্পানি হিসেবে প্রতিষ্ঠায় অত্যন্ত গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। সালমান এফ রহমান অনেক জনহিতকর কর্মকাণ্ডে জড়িত এবং তিনি সামাজিক দায়বদ্ধতা পূরণে দেশের মানুষের কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। কিছুদিন আগে যখন মায়ানমার সেনাবাহিনীর সহিংসতা কারণে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে তখন সালমান এফ রহমান রোহিঙ্গাদের জন্য সাহায্যে হাত বাড়িয়ে দেন। তিনি সেই দুর্ভোগের সময়ের রোহিঙ্গাদের খাদ্য বিতরণের পাশাপাশি প্রায় ৪ হাজার পরিবারের মাঝে কাপড় বিতরণ করেন। পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্য সেবা দেবার উদ্দেশ্যে একটি মেডিকেল ক্যাম্প স্থাপন করা হয় তার বেক্সিমকো গ্রুপের পক্ষ থেকে।

দেশের বিভিন্ন খাতে নানান ভাবে অবদান রেখে যাচ্ছেন সালমান এফ রহমান।

শিল্পখাতে বেক্সিমকো এর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে জানা যাক:

Beximco Pharma

বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড (বেক্সিমকো ফার্মা) সাশ্রয়ী ও মানসম্পন্ন ওষুধের সরবরাহ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। কোম্পানির অত্যাধুনিক উৎপাদন সুবিধাগুলি ইউএসএ, অস্ট্রেলিয়া, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, কানাডা এবং ব্রাজিলের নিয়ামক কর্তৃপক্ষ দ্বারা স্বীকৃত হয়েছে। বর্তমানে গ্রুপটি বিশ্বের বিভিন্ন উন্নত বাজারে উপস্থিতি বাড়ানোর দিকে মনোনিবেশ করছে। 

অল্প সময়ের মধ্যে বেশ উন্নতির শেখরে পৌঁছেছে এই ফার্মা গ্রুপটি।

যে কারণে এগিয়ে রয়েছে বেক্সিমকো ফার্মা:

বেক্সিমকো ফার্মা বাংলাদেশের প্রথম সারির শীর্ষ  ওষুধ উৎপাদনকারি প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানটির উৎপাদন কৃত ওষুধ গুলো গুণগত মানের দিক থেকেও অনেকটা এগিয়ে রয়েছে। বেক্সিমকো বাংলাদেশ থেকে বিদেশে ওষুধ রপ্তানিকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ও শীর্ষে অবস্থান করছে। 

COVID-19 বা করোনা ভাইরাস মহামারির এই দুরসময়ে করোনা ভাইরাস ঠেকানোর জন্য ভ্যাকসিন আমদানিতে দেশের একমাত্র প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে বেক্সিমকো। ব্যাবসায়িক এর পাশাপাশি সেবা সমূহের দিক থেকে অনেকটাই এগিয়ে আছে দেশের এই প্রতিষ্ঠানটি। আর এইজন্যই সেবামূলক খাতে অবদান রাখার কারণে এগিয়ে রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানটি।

Beximco LPG smart cylinder

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা হওয়ার কথা আমরা সবাই জানি। তবে এখন যদি আপনাদের এমন একটি গ্যাস সিলিন্ডার এর সাথে পরিচয় করিয়ে দেই যেটিতে বিষ্ফোরণ হওয়ার সুযোগ একদম নেই বললেই চলে, তাহলে কেমন হয়? এখন ভাবছেন, গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করবেন কিন্তু বিস্ফোরণ হওয়ার কোনো সুযোগ থাকবে না, এমনটা কিভাবে সম্ভব? এমনই অসম্ভব কে সম্ভব করেছে beximco গ্রুপ। তারা এমন এক ধরনের গ্যাস সিলিন্ডার উৎপাদন করেছে যেটিতে বিস্ফোরণ হওয়ার সুযোগ একদমই কম। সাধারণত আমরা আমাদের বাজারে যে সিলিন্ডার গুলো দেখে থাকি সেগুলো স্টিল এর তৈরি, আর স্টিল হওয়াতে এগুলো উচ্চ তাপে ব্লাস্ট হয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে।

আর এই কারণে এমন সিলিন্ডার ব্যবহার আমাদের বাসাবাড়ির জন্য অত্যন্ত বিপদজনক। দেখা যায়, বাসাবাড়িতে আমরা অনেক ঝুঁকির সাথে এইসব সিলিন্ডার ব্যবহার করে থাকি। বেক্সিমকো গ্রুপের তৈরি স্মার্ট গ্যাস সিলিন্ডারটি উচ্চ ফাইবার রেজিন দ্বারা তৈরী হওয়াতে এটি সহজে উচ্চ তাপামাত্রায় ব্লাস্ট হয়না। সাধারণ সিলিন্ডার গুলো ঝুঁকি নিয়ে ব্যবহার না করা এই ধরনের স্মার্ট সিলিন্ডার ব্যবহার করা অনেক উত্তম। উচ্চ রেজিন দ্বারা তৈরী হওয়াতে এই ধরনের সিলিন্ডার গুলো ফুলে বিস্ফোরিত হয় না।

BEXIMCO Textiles

Textile product উৎপাদনে এশিয়ার মধ্যে বৃহত্তম BEXIMCO. পাটের সুতা রপ্তানিতে তারা বিশেষ ভূমিকা পালন করছে। তাদের প্রধান উৎপাদন বেস গাজীপুরে অবস্থিত। Beximco পাকিস্তানের করাচিতে Yellow ব্র্যান্ড এর পোশাক চালু করে প্রথম বৈদেশিক খুচরা বিক্রয় কেন্দ্র খুলে এবং এর পরবর্তী সময়ে Yellow brand এর শোরুম বাংলাদেশ সহ পাকিস্তানের বেশ কিছু শহরে প্রসারিত হয়।

বেক্সিমকো টেক্সটাইল গ্রুপের বিভিন্ন ইউনিট সমূহ:

  • Yarn Spinning
  • Fabric Weaving
  • Processing and Finishing
  • Apparel Manufacturing
  • Sewing Thread & Labels Manufacturing
  • Printing
  • Embroidering
  • Washing
  • Packaging

বেক্সিমকো টেক্সটাইল গ্রুপের আন্তর্জাতিক বাজার সমূহ:

  • Springfield
  • VAN Heusen
  • Calvin Klein
  • DKNY
  • Zara
  • J.C. Penny
  • Next
  • IZOD
  • Arizona
  • H & M
  • Geoffory Beene
  • St. Johns Bay
  • Mother Care
  • Arrow
  • J. Ferrar
  • Bershka
  • Kenneth Cole Reaction
  • Decree
  • ESPIRIT
  • CHAPS
  • Levis

Read More : ওয়ালটনের ইতিহাস , যাত্রা ও অবস্থা


বেক্সিমকো টেক্সটাইল গ্রুপের বিভিন্ন প্রোডাক্ট সমূহ সংক্ষিপ্ত আকারে উল্লেখ্য করা হলো:

  • পুরুষ, মহিলা, শিশুদের পোশাক
  • শার্ট (আনুষ্ঠানিক ও নৈমিত্তিক)
  • ব্লাউজ
  • স্কার্ট
  • জ্যাকেট
  • জিন্স
  • টপস ইত্যাদি

TRAVEL & TOURISM

১৯৯৩ সাল থেকে বাংলাদেশের বাইরে ট্র্যাভেল রিলেটেড সার্ভিসেসের জন্য অনুমোদিত আইএটিএ-র দীর্ঘ অভিজ্ঞতার সাথে যাত্রা শুরু হয়েছিল। ১৯৯৯ সাল নাগাদ এটি বাংলাদেশের অন্যতম সফল কর্পোরেট ট্রাভেল এজেন্সি হয়ে উঠেছে।

DTH – Directs To Home

 

DTH এর মানে হলো “Directs To Home“, Beximco Communications Limited  বাংলাদেশের জনগণকে বিশ্বমানের টেলিভিশন দেখার অভিজ্ঞতা দেওয়ার জন্য প্রথম “ডাইরেক্ট-টু-হোম” (DTH) পরিষেবা নিয়ে এসেছে। ডিটিএইচ হ’ল একটি ডিজিটাল প্রযুক্তি যা তার দর্শকদের এইচডি মানের ছবি এবং শব্দ সহ সরাসরি উপগ্রহ থেকে টেলিভিশন সংকেত পাওয়ার সুযোগ দেয়। জনগনের সুবিধার্থে DTH সার্ভিসটি অনেকটা কাজে এসেছে।

ICT Sector এ বেক্সিমকো গ্রুপ :

গ্রুপটি বাংলাদেশের ব্যাংকিং, সাধারণ উদ্দেশ্যে সফ্টওয়্যার এবং উচ্চ গতির ইন্টারনেট পরিষেবাদির একটি শীর্ষস্থানীয় সরবরাহকারী। এটিতে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তি দ্বারা সমর্থিত একটি উচ্চ মানের গ্রাহক বেস রয়েছে। এই গ্রুপটি Google, Microsoft, Kaspersky, ESET, and Barracuda এর ব্যবসায়িক অংশীদার।

MEDIA

গ্রুপটি বাংলাদেশের অন্যতম টিভি নিউজ চ্যানেল ‘Independent Television’ এর মালিক। Independent Television মার্চ, ২০১০ সালে বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে সম্প্রচারের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে লাইসেন্স পায়।এই নিউজ চ্যানেলটি তার দর্শকদের কাছে ২৪ ঘণ্টা সংবাদ এবং বিশ্লেষণের একটি সম্পূর্ণ বর্ণালী উপস্থাপন করে। 

PPE

Beximco PPE বিভাগ হাই কুয়ালিটি PPE suits, masks, aprons, patient scrubs, disposable gowns, caps, shoe covers, hospital bed sheets, pillow covers, and curtains উৎপাদন করে থাকে।

এছাড়া বেক্সিমকো গ্রুপের রয়েছে আরো অনেক প্রতিষ্ঠান ।

এক নজরে বেক্সিমকোর অধীনস্ত প্রতিষ্ঠান (সূত্র : wikipedia)

  • দ্য বেক্সিমকো গ্রুপ
  • বেক্সিমকো জুট ডিভিশন
  • বেক্সিমকো ফার্মা
  • বেক্সিমকো সিনথেটিক্স লিমিটেড
  • বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কো. লিমিটেড – টেক্সটাইল & এপারেল ডিভিশন
  • শাইনপুকুর সিরামিকস
  • বেক্সিমকো পেট্রোলিয়াম লিমিটেড
  • বেক্সিমকো পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড
  • বেক্সিমকো ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড
  • বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কো. লিমিটেড – মেরিন ফুডস ডিভিশন
  • বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কো. লিমিটেড – আইওটি ডিভিশন
  • বাংলাদেশ অনলাইন
  • আইএফআইসি ব্যাংক
  • ইয়েলো
  • দ্য ইনডিপেনডেন্ট
  • ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন
  • রিয়েল ভিইউ
  • বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কো. লিমিটেড – রিয়েল এস্টেট ডিভিশন
  • বেক্সিমকো কম্পিউটার লিমিটেড
  • ঢাকা ডায়নামাইটস
  • বেক্সট্রেড লিমিটেড
  • বেক্সিমকো সিকিউরিটিজ লিমিটেড
  • বেক্সিমকো কমিউনিকেশন লিমিটেড (ডিটিএইচ)
  • ওয়েস্টিন হোটেলস (বাংলাদেশ)
  • শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব

 

beximco group

ইতি কথা :

আজকে আমরা বেক্সিমকো গ্রুপটি সম্পর্কে বিস্তারিত অনেক কিছু জানানোর আপনাদের চেষ্টা করেছি।

বেক্সিমকো গ্রুপটি সময়ের সাথে সাথে বাংলাদেশের নানান খাতে অবদান রেখে চলেছে। তার সাথে এই গ্রুপ বা কোম্পানিটির প্রতিষ্ঠাতা সালমান এফ রহমান ও তার প্রজ্ঞা এবং মেধা কে কাজে লাগিয়ে সমাজ কল্যাণে করছে নানান কর্মকাণ্ড। সময়ের সাথে সাথে এই কোম্পানিটি এবং এর আওতায় সকল সহায়ক কোম্পানি গুলো নতুন কিছুর উদ্ভাবনাতে কাজ করে যাচ্ছে। আজকের আর্টিকেলটা মূলত এই পর্যন্ত। Beximco সম্পর্কে আপনার কি মতামত সেটি অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। যদি আর্টিকেলটা ভালো লেগে থাকে তাহলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন । 

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button